ভ্যাম্পায়ার সিন্ড্রোম: চিলড্রেন অব দ্য নাইট!

ব্রাম স্টোকার তাঁর বিখ্যাত ভৌতিক উপন্যাস "ড্রাকুলা"-তে ভ্যাম্পায়ারদের সম্পর্কে লিখেছিলেন― “Listen to them, the children of the night. What music they make!” ইন্টারেস্টিং একটা অসুখ পড়তে গিয়ে এই কথাটা ভীষণভাবে মনে পড়লো। "ভ্যাম্পায়ার সিন্ড্রোম" নামে একটা অসুখ আছে, মেডিক্যাল পরিভাষায় যাকে বলা হয় "জেরোডার্মা পিগমেন্টোসাম" (Xeroderma pigmentosum)।…
Read More...

সূর্যগ্রহণ ও চন্দ্রগ্রহণঃ পুরাণ, কুসংস্কার ও বিজ্ঞান (শেষ পর্ব)

প্রথম পর্বের পর গত পর্বে আমরা গ্রহণ সম্পর্কিত পৌরাণিক কাহিনীসমূহ নিয়ে আলোচনা করেছিলাম। আজ বৈজ্ঞানিক…

সূর্যগ্রহণ ও চন্দ্রগ্রহণঃ পুরাণ, কুসংস্কার ও বিজ্ঞান (পর্ব-১)

হাইস্কুলে উঠে মাথায় কমিকের নেশা চেপেছিলো। ঐসময় হার্জের বিখ্যাত কমিক টিনটিন সিরিজের Prisoners of the Sun (সূর্যদেবের…

সারভাইক্যাল ক্যান্সার: সচেতন হলে বাঁচবে লাখো জীবন!

জরায়ুর নিচের অংশকে বলা হয় সারভিক্স (জরায়ু-মুখ)। এই সারভিক্সে ক্যান্সার হলে তাকে বলা হয় সারভাইক্যাল ক্যান্সার (জরায়ু-মুখের ক্যান্সার)। বর্তমানে সারা বিশ্বের নারীদের মধ্যে এটি ৪র্থ প্রধান ক্যান্সার। তবে বাংলাদেশে এর অবস্থান ২য় (স্তন ক্যান্সার ১ম)। এদেশের ক্যান্সার আক্রান্ত নারীদের মধ্যে শতকরা ৩০ ভাগ-ই সারভাইক্যাল ক্যান্সারের শিকার হন। ২০১০ সালের এক…
Read More...

জুরাসিক যুগ ও ডায়নোসর-বৃত্তান্ত: পর্ব-১

মিলিয়ন মিলিয়ন বছর আগেকার পৃথিবীতে একটা সময় ছিলো, যাকে বলা হতো মেসোজোয়িক যুগ। এই মেসোজোয়িক যুগকে আবার তিন ভাগে ভাগ করা হয়ঃ- ট্রায়াসিক, জুরাসিক এবং ক্রিটাসিয়াস যুগ। ট্রায়াসিক যুগের শেষভাগ থেকে শুরু করে ক্রিটাসিয়াস যুগের মাঝামাঝি পর্যন্ত এই ডায়নোসরেরা রাজত্ব করেছে। ডায়নোসরেরা শুধু মাটিতেই ঘুরে বেড়ায় নি, সমুদ্রেও দাপিয়ে বেড়িয়েছে। ডায়নোসর শব্দটির…
Read More...

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের শ্রদ্ধাঞ্জলিঃ আমরা তোমাদের ভুলবো না!

১৯৭১ সালের ডিসেম্বরে স্বাধীনতা যুদ্ধ যখন শেষের পথে, তখন পাকিস্তানি বাহিনী বুঝে ফেলে-- যুদ্ধে তাদের পরাজয় নিশ্চিত।…

অদ্ভুত যতো ভয়ভীতিঃ পর্ব দুই।। ফ্রাইডে দ্য থার্টিন্থ

গত পর্বে আমরা ফিলোফোবিয়া সম্পর্কে বলেছিলাম। আজ আরেকটি অদ্ভুত ভীতির কথা বলবো। বিষয়টা যতোটা মজার, নামটা ঠিক ততোটাই…

কাইমেরিজমঃ একই অঙ্গে বহু রূপ!

২০০২ সালে আমেরিকায় এক অবিশ্বাস্য ঘটনা ঘটে! লিডিয়া ফেয়ারচাইল্ড নামে এক মহিলা স্বামীর সাথে ডিভোর্সের পর তার দুই সন্তানের দায়িত্ব নেয়ার জন্য আদালতের শরণাপন্ন হন। আদালত লিডিয়ার মাতৃত্ব নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে ডিএনএ টেস্ট করতে বলে। কিন্তু টেস্টের রেজাল্ট আসে নেগেটিভ! অর্থাৎ, ডিএনএ টেস্ট অনুযায়ী লিডিয়ার সাথে তার সন্তানদের কোনো সম্পর্কই নেই! আদালত তখন…
Read More...