ব্রাজিল বনাম মেক্সিকো-হেক্সা জয়ের মিশনে মেক্সিকো বাধা পেরোতে পারবে কি ব্রাজিল?

২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ ফুটবল বিশ্বে স্মরণীয় হয়ে থাকবে অঘটনের বিশ্বকাপ হিসেবে। ফুটবলের পরাশক্তি দলগুলো কেউই খুব একটা সুবিধা করতে পারছে না এই আসরে। ইতালী নেদারল্যান্ড কোয়ালিফাইই করতে পারে নি। গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিয়েছে জার্মানী। শেষ ষোল থেকে আর্জেন্টিনা পর্তুগালের পর গতকাল স্পেন কেও বিদায় নিতে হয়। সবচেয়ে আনপ্রেডিক্টেবল টুর্নামেন্ট হিসেবে এই আসরের নাম চলে আসবে সবার উপরের দিকে। ফেবারিট তকমা কে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে মধ্যম মানের দলগুলো দেখাচ্ছে একের পর এক চমক। তাই কোন ম্যাচের রেজাল্ট কার পক্ষে যাবে, তা বুঝতে পারছেন না ফুটবল বিশারদ রাও।

ব্রাজিল বনাম মেক্সিকো

ইতিহাস, সামর্থ্য বা শক্তিমত্তা সবকিছুর বিচারেই ব্রাজিলের চেয়ে যোজন যোজন পিছিয়ে মেক্সিকো। প্রতিবারের মতো এবারও তারকা সমৃদ্ধ দল নিয়েই বিশ্বকাপে এসেছে ব্রাজিল, শিরোপারও অন্যতম দাবিদার তারা। অন্যদিকে মাঝামাঝি মানের একটি দল নিয়ে বিশ্বকাপে আসা মেক্সিকো প্রথম ম্যাচেই চমক দেখায় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন জার্মানী কে হারিয়ে। দুই ম্যাচ জিতে জায়গা করে নেয় শেষ ষোল তে। তাই তাদের সামর্থ্য

নিয়েও প্রশ্ন করার উপায় নেই। সব মিলিয়ে বিশ্বকাপের আরেকটি জমজমাট ম্যাচের অবতারনা ঘটবে বলেই আশা করছে সবাই।

সাম্প্রতিক ফর্মঃ

দল যতোটা শক্তিশালী, সেরকম সূচনা করতে পারে নি ব্রাজিল। প্রথম ম্যাচেই সুইজারল্যান্ডের সাথে ১-১ গোলে ড্র করে পয়েন্ট হারায় তারা। পরের ম্যাচে কোস্টারিকার সাথেও গোল পেতে অপেক্ষা করতে হয় ৯০ মিনিট পর্যন্ত। শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলে ম্যাচ জিতলেও সন্তুষ্ট ছিলেন না কোচ। গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে সার্বিয়া কে ২-০ গোলে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয় ব্রাজিল। প্রথম দিকে কিছুটা ভুগলেও শেষ পর্যন্ত ছন্দে ফিরেছে দল। অন্যদিকে প্রথম ম্যাচ থেকেই উড়ছিলো মেক্সিকো। প্রথম দুই ম্যাচেই জয়, যার মধ্যে একটি জার্মানীর বিপক্ষে। কিন্তু গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে এসে খেই হারিয়ে ফেলে তারা। সুইডেনের কাছে হেরে যায় ৩-০ গোলে। সেই হার কিছুটা হলেও প্রভাব ফেলবে আজকের ম্যাচে। সাম্প্রতিক ফর্ম বিবেচনায় তাই ব্রাজিল এগিয়ে থাকবে আজকের ম্যাচে।

ম্যাচ জয়ের পর ব্রাজিল একাংশ

টিম নিউজঃ

ইঞ্জুরীর কারণে দল থেকে ছিটকে গিয়েছে ডগলাস কস্তা। দানিলো এবং মার্সেলোও অনিশ্চিত আজকের ম্যাচে হালকা ইঞ্জুরীর জন্য।ক্যাসিমিরো, নেইমার এবং কৌতিনহো একটি করে হলুদ কার্ড দেখেছেন, তাই আজকের ম্যাচে কোন কার্ড তাদের ছিটকে দিবে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে।

অন্যদিকে মেক্সিকোর হেক্টর মরেনো আজকের ম্যাচে সাস্পেন্ডেড দুই হলুদ কার্ড দেখায়। ডিফেন্সে তার অভাব ভোগাতে পারে দলকে।

সম্ভাব্য একাদশঃ

ব্রাজিলঃ

এলিসন

ফ্যাগনার

থিয়াগো সিলভা

ফিলিপে লুইজ

মিরান্ডা

পলিনহো

ক্যাসিমিরো

কৌতিনহো

নেইমার

উইলিয়ান

গ্যাব্রিয়েল জেসুস

মেক্সিকোঃ

ওচোয়া

মিগুয়েল

আয়ালা

সালসেদো

গালার্ডো

হেরেরা

ডস সান্তোস

গুয়ারদাদো

কার্লোস ভেলা

চিচারিতো

লোজানো

মূল তারকাঃ

আসর শুরুর আগে ব্রাজিলের মূল তারকা নেইমারকে মনে হলেও, ব্রাজিলের প্রতিটি জয়ের মূল কান্ডারী হচ্ছেন কৌতিনহো। প্রথম ম্যাচের একমাত্র গোল, দ্বিতীয় ম্যাচের প্রথম গোল, শেষ ম্যাচে একটি এসিস্ট। এক কথায় বিশ্বকাপ টা দারুণ যাচ্ছে এই ব্রাজিলিয়ানের। আজকের ম্যাচেও চোখ থাকবে তার উপরই। নেইমার এখন পর্যন্ত নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেন নি।তবে আজকে তিনি জ্বলে উঠলে ম্যাচ ঘুরে যাবে ব্রাজিলের পক্ষে।

চিচারিতো প্রস্তুত ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচের জন্য

মেক্সিকোর হয়ে মাঠ কাপাচ্ছেন তরুণ তারকা লোজানো। তার উপর অনেকটুকু নির্ভর করবে মেক্সিকোর ভাগ্য। সাথে চিচারিতো এবং কার্লোস ভেলার সাহায্য পেলে ভুগতে হবে ব্রাজিল কে। আর ব্রাজিলের সাথে সমসময়ই নিজের সেরাটা দেন মেক্সিকোর গোলকিপার ওচোয়া। আজ তিনি একাই ঘুড়িয়ে দিতে পারেন ম্যাচের ভাগ্য।

হেড টু হেডঃ

দুই দল সর্বমোট ৪১ বার মুখোমুখি হয়েছে। ব্রাজিল জিতেছে ২৩ বার, মেক্সিকো ১০ বার, বাকি ৭ ম্যাচ ড্র।

বিশ্বকাপে দুই দল ৪ বার মুখোমুখি হয়। একবার ও জিততে পারে নি মেক্সিকো। এই রেজাল্ট অনুপ্রেরণা যোগাবে ব্রাজিলকে।

গত সাত বছর ধরে দ্বিতীয় রাউন্ড খেলে আসা মেক্সিকো শেষ আটে পৌছেছে মাত্র একবার। তাই তারা খুব করেই চাইবে ব্রাজিল কে হারিয়ে শেষ ষোলোর কুফা কাটাতে। অন্যদিকে ষষ্ঠ শিরোপা জিততে আসা ব্রাজিলের জন্য এই ম্যাচ জয়ের কোন বিকল্প নেই। আর্জেন্টিনা, জার্মানী, স্পেন বিহীন এই বিশ্বকাপ যদি নিজেদের করে নিতে না পারে তার আফসোস থেকে যাবে সারাজীবন। ম্যাচের রেজাল্ট জানা যাবে কিছুক্ষণ পরেই।রাত আট টায় জানা যাবে শেষ হাসি কে হাসবে।