x-video.center fuck from above. azure storm masturbating on give me pink gonzo style. motphim.cc sexvideos

বিশ্বকাপের গ্রুপ সমীকরণঃ কি করলে কি হবে?

0

রাশিয়া বিশ্বকাপ ২০১৮ শুরুর আগে যদি আপনাকে কেউ বলত যে জার্মানি বা পর্তুগাল কিংবা আর্জেন্টিনা গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়বে তবে কি আপনি তা হেসে উড়িয়ে দিতেন? বর্ণিল বিশ্বকাপ চলছে। রংবেরঙের পালে হাওয়া লেগে গেছে এবার গ্রুপ পর্বের খেলা থেকেই। বিশ্বকাপ এবার এতটা অঘটন(!) হবে তা কি আপনি ভাবতে পেরেছিলেন? কাগজে কলমের হিসাবে কিন্ত এখনও ব্রাজিল, জার্মানি, আর্জেন্টিনা, পর্তুগাল এর গ্রুপ পর্ব থেকেই বাদ পরার সম্ভাবনা রয়েছে। আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া গ্রুপ পর্বের ৩য় রাউন্ড এর খেলার আগে বিশ্বকাপের গ্রুপ সমীকরণ এর হিসাব-কিতাব কেমন হতে হবে তাহলে? গ্রুপ বাই গ্রুপ আলোচনা থাকছে আজ।

গ্রুপ

বিশ্বকাপের গ্রুপ গুলো

Group A:

এ গ্রুপের বর্তমান অবস্থা

উরুগুয়ে উঠবেই টুর্নামেন্ট শুরুর আগে এটা অনুমেয় ছিলই। সালাহ ম্যাজিকে মিশর উঠবে কিনা এটাই বাকি ছিল দেখার। তবে সবাইকে এক প্রকার চমকে দিয়েই রাশিয়া বাজিমাত করে রেখেছে এখনও। দুই ম্যাচে ৮ গোল স্বাগতিকদের। ছয় পয়েন্ট নিয়ে উরুগুয়ের সাথে আপাতত গোল ব্যবধানে তারা এগিয়ে থাকায় ১ম স্থানে আছে। গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন কারা হবে তা নির্ধারিত হবে শেষ ম্যাচে অর্থাৎ উরুগুয়ে বনাম রাশিয়া ম্যাচের জয়ী দল হবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন। তবে ম্যাচ ড্র হলে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় রাশিয়াই হবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন।

 

Group B:

বি গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে বর্তমান অবস্থা

ড্র দেখে বেশিরভাগই হয়ত ধরে নিয়েছিলেন যে স্পেন/পর্তুগাল এর যে কোন একজন চ্যাম্পিয়ন হবে, বাকিজন রানার্সআপ। কিন্ত ফুটবল এমন নিয়ম মেনে চলে না। গ্রুপের শেষ ম্যাচের সমীকরণে বাদ পরে যেতে পারে ইরান/পর্তুগাল/স্পেন !!! কিভাবে? পর্তুগাল বা স্পেনের নিজ নিজ ম্যাচে যদি পয়েন্ট না হারায় তবে নিরবিঘ্নেই চলে যাবে তারা।

পর্তুগাল-ইরান ম্যাচ যদি ইরান জিতে যায় তাহলে ইরানই উঠবে।

যদি ড্র করে ইরান তবে সেক্ষেত্রে স্পেনের ম্যাচের ফলাফল এর উপর নির্ভর করতে হবে তাদের। স্পেনকে তখন হারতে হবে মরক্কোর সাথে এবং তখন গোল পক্ষে, বিপক্ষে অর্থাৎ গোল ব্যবধানে তাদের সব হিসাব নিকাশ হবে।

আবার ধরুন মরক্কো জিতে গেল স্পেনের সাথে। তখন পর্তুগাল শুধু ড্র করেও উৎরে যাবে পরের রাউন্ড এ কিন্ত ইরান স্পেনের সমান পয়েন্ট নিয়েও বাদ পড়বে তখন।

স্পেন যদি হেরেই যায় মরক্কোর সাথে আর ইরান জিতে যায় সেক্ষেত্রে পর্তুগাল আর স্পেনের গোল ব্যবধানই পার্থক্য গড়ে দেবে দুই ইউরোপিয়ান জায়ান্টদের।

 

Group C:

সি গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে বর্তমান অবস্থা

ফ্রান্স অনেকটাই ২য় রাউন্ড এ পা দিয়ে রেখেছে। তাদের শেষ ম্যাচ ডেনমার্ক এর সাথে। জয়/ড্র করলেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে উঠে যাবে তারা। তবে ডেনমার্ক এর কাছে হেরে গেলে ফ্রান্স হবে গ্রুপ রানার্সআপ।

অস্ট্রেলিয়ার উঠতে হলে ডেনমার্ককে ফ্রান্সের কাছে হারতেই হবে সেইসাথে সকারুজদের গোল ব্যবধান ভালো থাকতে হবে ডেনমার্ক এর চেয়েও।

 

Group D:

ডি গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে বর্তমান অবস্থা

বর্তমানের অন্যতম আলোচিত গ্রুপ অফ ডেথ গ্রুপ এটাই। শেষ রাউন্ড এর হিসাবের মারপ্যাচে যে ক্রোয়েশিয়ার সাথে ২য় দল হিসেবে উঠতে পারে নাইজেরিয়া, আইসল্যান্ড কিংবা আর্জেন্টিনা!!! নাইজেরিয়া বা আর্জেন্টিনার হিসাব সহজ। মুখোমুখি ম্যাচে দুই দলের যারাই জিতবে তারাই যাবে। সেক্ষেত্রে আইসল্যান্ড এর ফলাফল আর কাজে আসবে না। তবে আইসল্যান্ড এর সমীকরণ একটু কঠিন। ড্র করলেও চলবে না তাদের। আর্জেন্টিনা-নাইজেরিয়া ম্যাচ ড্র হতেই হবে এবং তাদের ক্রোয়েশিয়াকে হারাতে হবে নূন্যতম ৩-০ গোলে।

 

Group E:

ই গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে বর্তমান অবস্থা

কোস্টারিকা ছাড়া বাকি তিনটি দলই উঠতে পারে এখনও। কে হবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন এখনও বলা যাচ্ছে না। শেষ রাউন্ড এর খেলার উপর নির্ভর করছে সব।

সুইজারল্যান্ড-কোস্টারিকা ম্যাচে যদি সুইজারল্যান্ড জিতে তাহলে ব্রাজিল-সার্বিয়া ম্যাচের ফল ঠিক করে দেবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন কারা হবে।

ব্রাজিল সার্বিয়া ম্যাচ যারা জিতবে তারা ২য় রাউন্ড এ পা রাখবে অবশ্যই। সার্বিয়া হেরে গেলে সেক্ষেত্রে সুইজারল্যান্ড তাদের ম্যাচে হারলেও তারা গ্রুপ রানার্সআপ হয়েই উঠবে।

 

Group F:

এফ গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে বর্তমান অবস্থা

নিজেদের ১ম ম্যাচেই হোঁচট খেয়ে ভালোই বিপদে পরেছে বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। নিজেদের ২য় ম্যাচে জিতলেও এখনও তাদের বাদ পরার সম্ভাবনা রয়েছে যথেষ্ট!!! গ্রুপের পরবর্তী ম্যাচ জার্মানি বনাম উত্তর কোরিয়া এবং মেক্সিকো বনাম সুইডেন।

সুইডেন ১ গোলের ব্যবধানে জিতলে এবং জার্মানি ২ গোলের ব্যাবধানে জিতলে জার্মানি গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন, মেক্সিকো বাদ। সুইডেন হারলে জার্মানি ড্র করলেও পরের রাউন্ড এ রাউন্ড এ যাবে। সুইডেন ড্র করলে জার্মানি ড্র করলে জার্মানি বাদ। সুইডেন ১ গোলের ব্যবধানে জিতলে জার্মানি ১ গোলের ব্যাবধানে জিতলে জার্মানি বাদ(এখন পর্যন্ত ফেয়ারপ্লের হিসাবে)।

জার্মানি ২ গোলের ব্যবধানে জিতলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন ও হতে পারে, সেক্ষেত্রে সুইডেন ১-০ জিততে হবে।

 

Group G:

জি গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে বর্তমান অবস্থা

অনুমিতভাবেই ফলাফল এসেছে বেলজিয়াম, ইংল্যান্ড এর নিজ নিজ ম্যাচের। তাদের শেষ ম্যাচের মুখোমুখি ফলাফলই নির্ধারণ করবে কে হবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন, কে হবে রানার্সআপ। যেহেতু দুই দলেরই পয়েন্ট, গোল ব্যবধান, গোল পক্ষে, গোল বিপক্ষে সমান অতএব ম্যাচ ড্র হলে তাদের আলাদা করা হবে ফেয়ার প্লের সাহায্য নিয়ে। ইংল্যান্ড এই মুহূর্তে কার্ড এর সংখ্যা নিয়ে পিছিয়ে আছে।

 

Group F:

এইচ গ্রুপের পয়েন্ট টেবিলে বর্তমান অবস্থা

পোল্যান্ড এর বিশ্বকাপযাত্রা শেষ। শেষ ম্যাচ জাপানের সাথে তাদের আনুষ্ঠানিকতা মাত্র। পোল্যান্ডের সেই ম্যাচ জিতলেও কিছু হবে না। তবে জমে যাবে এই গ্রুপের লড়াইও।

জাপান-পোল্যান্ড ম্যাচ এ যদি জাপান জিতে যায় তাহলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে উঠবে তারাই(যদি সেনেগাল এর থেকেও গোল ব্যবধান বা অন্য মাপকাঠিতে এগিয়ে থাকে)। জাপান ড্র করলে তারা যাবেই পরের রাউন্ড এ। কারণ সেক্ষেত্রে সেনেগাল-কলম্বিয়া মাচের ফল যাই হোক না কেন জাপান গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন না হলেও পরের রাউন্ড এ ২য় হয়ে যাচ্ছে।

কিন্ত যদি হেরে যায় তাহলে সেনেগাল-কলম্বিয়া মাচের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে তাদের। জাপান হেরে গেলে আর ওদিকে যদি সেনেগাল-কলম্বিয়া ম্যাচ ড্র ও হয় তাহলেও জাপান বাদ। কারণ কলম্বিয়ার গোল ব্যবধান বেশি এবং ড্র হলে সেনেগালের পয়েন্ট বেশি হবে। কিন্ত হেরেও যেতে পারবে জাপান যদি কেবল মাত্র সেনেগাল জিতে। জাপান এর হারের সাথে যদি সেনেগাল ও হারে তাহলে দুদলেরই পয়েন্ট হবে ৪। সেক্ষেত্রে তাদের আলাদা করার জন্য দরকার হবে গোল ব্যবধান বা বাদবাকি মাপকাঠি। জাপান ও সেনেগাল উভয়ই যদি জিতে তাহলে তাদের গোল ব্যবধানের মাধ্যমে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন/রানার্সআপ নির্ধারিত হবে।

 

কঠিন এক রাউন্ড অপেক্ষা করছে দলগুলোর জন্য। এক ম্যাচের হিসেবেই বদলে যেতে পারে অনেক কিছু। হয়ত দেশের উদ্দেশ্যে বিমান ধরতে হবে নয়ত পরের রাউন্ড এর ভেন্যুতে যাওয়ার বিমানে উঠতে হবে।

 

Comments
Loading...
sex videos ko ko fucks her lover. girlfriends blonde and brunette share sex toys. desi porn porn videos hot brutal vaginal fisting.