x-video.center fuck from above. azure storm masturbating on give me pink gonzo style. motphim.cc sexvideos

বিশ্বের সবচেয়ে বিষাক্ত ও ভয়ঙ্কর ১০টি সাপ

এই সরীসৃপগুলির মধ্যে একটির সাথে মুখোমুখি হলে আপনার জীবনহানী হতে পারে।

3

বিশ্বজুড়ে, এমন কিছু সাপ রয়েছে যা মানুষের মারাত্মক ক্ষতি বা মৃত্যু ঘটাতে সক্ষম। যদিও বিশ্বের বেশিরভাগ সাপ তুলনামূলকভাবে নিরীহ তাদের আক্রমনাত্মক আচরণ এবং শক্তিশালী বিষের কারণে অল্প সংখ্যক প্রজাতি মানুষের জন্য বেশ বিপজ্জনক। একটি সাপ কতটা বিষাক্ত তা নির্ধারণ করার বিভিন্ন উপায় রয়েছে, তাই যেকোনো তালিকার জন্য ব্যবহৃত মানদণ্ড বোঝা গুরুত্বপূর্ণ। “পৃথিবীর সবচেয়ে বিষাক্ত সাপ কি?” এটি এমন একটি প্রশ্ন যা আমাদের সকলের মনেই কোনো না কোনো সময়ে এসেছে । তারই ফলস্বরূপ এখানে বিশ্বের সবচেয়ে বিষাক্ত এবং ভয়ঙ্কর সাপ গুলোর একটি তালিকা দেয়া হলো ।

১০. রেটেল স্নেক (Crotalus scutulatus)

  • গড় আকার: ৩.৩ ফুট
  • ভৌগোলিকভাবে যেখানে পাওয়া যায় : দক্ষিণ-পশ্চিম মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং মধ্য মেক্সিকো

রেটেল স্নেক (Crotalus scutulatus)

 

Mojave Rattlesnake, Mojave Green নামেও পরিচিত, একটি অত্যন্ত বিষাক্ত পিট-ভাইপার প্রজাতি। এটি প্রধানত দক্ষিণ-পশ্চিম যুক্তরাষ্ট্রের মরুভূমি অঞ্চলের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় মেক্সিকোতে পাওয়া যায় এবং বিজ্ঞানীরা এটিকে বেশিরভাগ র‍্যাটলস্নেক প্রজাতির মধ্যে সবচেয়ে বিষাক্ত বিষের অধিকারী বলে মনে করেন।

০৯. Philippine কোবরা (Naja philippinensis)

  • গড় আকার: ৩.৩ ফুট
  • ভৌগোলিকভাবে যেখানে পাওয়া যায় : উত্তর ফিলিপাইন

Philippine কোবরা (Naja philippinensis)

 

ফিলিপাইন কোবরা, উত্তর ফিলিপাইন কোবরা নামেও পরিচিত, ফিলিপাইন দ্বীপপুঞ্জের সবচেয়ে উত্তর কোণে বসবাসকারী একটি অত্যন্ত বিষাক্ত প্রজাতির সাপ। এটি প্রায়শই ফিলিপাইনের নিচু সমভূমি এবং বনাঞ্চলে বাস করে এবং সাধারণত স্বচ্ছ পানির উৎসের কাছাকাছি পাওয়া যায়।

সাপটি বাদামী রঙের হয়, বয়স্ক সাপ বয়সের সাথে সাথে তাদের বাদামী চেহারা হালকা হয়ে যায়। কোবরার গড় দৈর্ঘ্য আনুমানিক ৩.৩ ফুট, তবে কিছু ফিলিপাইন কোবরা ৫.২ ফুট পর্যন্ত হতে পারে । 

০৮ Death Adder – ডেথ এডার (Acanthophis antarcticus)

  • গড় আকার: ১.৩ ফুট
  • ভৌগোলিকভাবে যেখানে পাওয়া যায় : পূর্ব এবং উপকূলীয় দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়া

Death Adder - ডেথ এডার (Acanthophis antarcticus)

 

ডেথ অ্যাডার অস্ট্রেলিয়া, নিউ গিনি এবং আশেপাশের অঞ্চলে পাওয়া একটি অত্যন্ত বিষাক্ত এলাপিড সাপ। এটিকে বিশ্বের সবচেয়ে মারাত্মক সাপগুলির মধ্যে একটি হিসাবে বিবেচনা করা হয়, প্রায় সাতটি বিভিন্ন প্রজাতি এর সামগ্রিক জেনাস তৈরি করে। যদিও ডেথ অ্যাডারের চেহারাটি ভাইপারের মতো, তবে এটি আসলে সাপের ইলাপিড পরিবারের সদস্য, যার মধ্যে রয়েছে কোবরা এবং ব্ল্যাক মাম্বা।

০৭ Tiger Snake – টাইগার স্নেক (Notechis scutatus)

  • গড় আকার: ৩.৯ ফুট
  • ভৌগোলিকভাবে যেখানে পাওয়া যায় : দক্ষিণ-পূর্ব অস্ট্রেলিয়া (বাস স্ট্রেইট দ্বীপ এবং তাসমানিয়া সহ), এবং অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণ-পশ্চিম অংশ

Tiger Snake - টাইগার  স্নেক (Notechis scutatus)

 

টাইগার স্নেক একটি অত্যন্ত বিষাক্ত সাপ যা অস্ট্রেলিয়া এবং তাসমানিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে পাওয়া যায়। এই ধরণের পরিবেশে প্রচুর শিকারের কারণে টাইগার স্নেক প্রায়ই উপকূলীয় অঞ্চল, জলাভূমি এবং জলাভূমিতে পাওয়া যায়।

০৬ Russell’s Viper – রাসেল ভাইপার (Daboia russelii)

  • গড় আকার: ৪ ফুট
  • ভৌগোলিকভাবে যেখানে পাওয়া যায় : ভারত, শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ, নেপাল, মায়ানমার, থাইল্যান্ড, পাকিস্তান, কম্বোডিয়া, তিব্বত, চীন (গুয়াংসি, গুয়াংডং), তাইওয়ান এবং ইন্দোনেশিয়া

Russell's Viper - রাসেল ভাইপার (Daboia russelii)

 

রাসেলের ভাইপার, চেইন ভাইপার নামেও পরিচিত, ভাইপেরিডি পরিবারের একটি বিষাক্ত সাপ। এটি প্রধানত দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, চীন, তাইওয়ান এবং ভারতে পাওয়া যায়। চেইন ভাইপারগুলি বেশ সাধারণ এবং সাধারণত তৃণভূমি বা ব্রাশযুক্ত এলাকায় পাওয়া যায়। এগুলি খামারগুলির আশেপাশেও সাধারণ কিন্তু বনাঞ্চল, সেইসাথে জলাভূমি এবং জলাভূমি এড়াতে থাকে।
চেইন ভাইপারের অন্যতম প্রধান খাদ্য উৎস হল ইঁদুর। ফলস্বরূপ, এই সাপগুলি প্রায়শই মানুষের বসতির আশেপাশে পাওয়া যায়, কারণ ইঁদুর এবং ইঁদুর মানুষের কাছাকাছি থাকে।

০৫ Black Mamba – ব্ল্যাক মাম্বা (Dendroaspis polylepis)

  • গড় আকার: ৬.৬ – ১০ ফুট
  • ভৌগোলিকভাবে যেখানে পাওয়া যায় : দক্ষিণ ও পূর্ব আফ্রিকা

Black Mamba - ব্ল্যাক মাম্বা (Dendroaspis polylepis)

 

ব্ল্যাক মাম্বা অত্যন্ত বিষাক্ত সাপের একটি প্রজাতি যা সাব-সাহারান আফ্রিকায় বসবাস করে। এই সাপটি মাটির পাশাপাশি গাছ উভয়েই বাস করে বলে জানা যায়। ফলস্বরূপ, এগুলি প্রায়শই সাভানা, বনভূমি, বন এবং পাথুরে অঞ্চলে পাওয়া যায়। এই অঞ্চলে ব্ল্যাক মাম্বা প্রায়ই পাখি এবং অন্যান্য ছোট প্রাণী শিকার করে। এর দ্রুত গতির কারণে (প্রায় 10 মাইল প্রতি ঘন্টা), সাপটি তার বেশিরভাগ শিকারকে সহজেই কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হয়।

০৪ Eastern Brown – ইস্টার্ন ব্রাউন (Pseudonaja textilis)

  • গড় আকার: ৪.৯ – ৬.৬ ফুট
  • ভৌগোলিকভাবে যেখানে পাওয়া যায় : পূর্ব ও মধ্য অস্ট্রেলিয়া এবং দক্ষিণ নিউ গিনি

Eastern Brown - ইস্টার্ন ব্রাউন (Pseudonaja textilis)

 

অস্ট্রেলিয়ার চারপাশে ঘন বন ছাড়া প্রায় সব পরিবেশেই ইস্টার্ন ব্রাউন পাওয়া যায়। এগুলি খামারের আশেপাশে সবচেয়ে বেশি দেখা যায়, কারণ তাদের প্রধান শিকারের মধ্যে রয়েছে জনবহুল বাড়ির ইঁদুর।

০৩ Inland Taipan – ইনল্যান্ড তাইপান (Oxyuranus microlepidotus)

  • গড় আকার: ৫.৯ ফুট
  • ভৌগোলিকভাবে যেখানে পাওয়া যায় : কুইন্সল্যান্ডের পশ্চিম এবং দক্ষিণ-পশ্চিম, নিউ সাউথ ওয়েলসের সুদূর পশ্চিমে, দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার উত্তর-পূর্ব কোণে এবং উত্তর অঞ্চলের দক্ষিণ-পূর্বে

Inland Taipan - ইনল্যান্ড তাইপান (Oxyuranus microlepidotus)

 

তাইপান একটি অত্যন্ত বিষাক্ত সাপ যা অস্ট্রেলিয়ায় থাকে। এটি ইলাপিড পরিবারের সদস্য (যার মধ্যে কোবরা রয়েছে) এবং বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে মারাত্মক সাপগুলির মধ্যে একটি হিসাবে বিবেচিত হয়। তাইপানের তিনটি পরিচিত প্রজাতি রয়েছে, যার মধ্যে রয়েছে উপকূলীয় তাইপান, অন্তর্দেশীয় তাইপান এবং কেন্দ্রীয় রেঞ্জের তাইপান। বেশিরভাগ তাইপান প্রজাতি কুইন্সল্যান্ডের উত্তর-পূর্ব উপকূলে, সেইসাথে পাপুয়া নিউ গিনির দক্ষিণাঞ্চলে পাওয়া যায়। এটি প্রাথমিকভাবে অন্যান্য ছোট স্তন্যপায়ী প্রাণীর সাথে ইঁদুর এবং ব্যান্ডিকুট খেয়ে থাকে ।

০২ Blue Krait – নীল ক্রাইট (Bungarus candidus)

  • গড় আকার: ৩.৬ ফুট
  • ভৌগোলিকভাবে যেখানে পাওয়া যায় : সমগ্র থাইল্যান্ড এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার অনেক জায়গা জুড়ে

Blue Krait - নীল ক্রাইট (Bungarus candidus)

 

নীল ক্রাইট বা মালয়ান ক্রেইট হল এলাপিড পরিবারের একটি অত্যন্ত বিষাক্ত সাপ। গড়ে, সাপটি প্রায় 3.6 ফুট দৈর্ঘ্যে পৌঁছায় এবং নীল-কালো ক্রসব্যান্ডগুলির একটি রঙের প্যাটার্ন বজায় রাখে যা হলুদ-সাদা মধ্যবর্তী রেখা দ্বারা পৃথক থাকে।

০১ Belcher’s Sea Snake – বেলচার সামুদ্রিক সাপ (Hydrophis belcheri)

  • গড় আকার: ১.৩ – ৩.৩ ফুট
  • ভৌগোলিকভাবে যেখানে পাওয়া যায় : প্রাথমিকভাবে ভারত মহাসাগরের গ্রীষ্মমন্ডলীয় প্রাচীরের কাছাকাছি, থাইল্যান্ডের উপসাগর, নিউ গিনি, ইন্দোনেশিয়া এবং ফিলিপাইনের উপকূলরেখা (অস্ট্রেলিয়া এবং সলোমন দ্বীপপুঞ্জের উপকূলে কিছু নমুনা পাওয়া গেছে)

Belcher's Sea Snake - বেলচার সামুদ্রিক সাপ

 

বেলচার সী স্নেক, যা ফেইন্ট-ব্যান্ডেড সি স্নেক নামেও পরিচিত, এটি এলপিড পরিবারের একটি অত্যন্ত বিষাক্ত সাপ। তার লাজুক এবং ভীরু মেজাজ সত্ত্বেও, বেলচার সামুদ্রিক সাপকে বিশ্বের সবচেয়ে বিষাক্ত সাপ হিসাবে বিবেচনা করা হয়। সাপটি আকারে তুলনামূলকভাবে ছোট, এটির দেহ সরু এবং সবুজ ক্রসব্যান্ড সহ একটি হলুদ বেস দেখতে পাওয়া যায়। এটি সাধারণত ভারত মহাসাগরের পাশাপাশি ফিলিপাইন, থাইল্যান্ডের উপসাগর, সলোমন দ্বীপপুঞ্জ এবং অস্ট্রেলিয়ার উত্তর-পশ্চিম উপকূলে পাওয়া যায়।

 

Source Source
Leave A Reply

Your email address will not be published.

3 Comments
  1. web links says

    I am often to blogging and i really appreciate your content. The article has really peaks my interest. I am going to bookmark your site and keep checking for new information.

  2. spindy says

    spindy where to buy fildena 100

  3. marizon ilogert says

    Deference to op, some excellent information .

sex videos ko ko fucks her lover. girlfriends blonde and brunette share sex toys. desi porn porn videos hot brutal vaginal fisting.